Breaking News

ঝিনাইদহে ভুল চিকিৎসায় প্রসূতি মৃত্যুর অভিযোগ

ঝিনাইদহে ভুল চিকিৎসায় এক প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার সন্ধ্যায় জেলা শহরের আরাপপুর এলাকার রাবেয়া হাসপাতাল অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে এ ঘটনা ঘটে।

মৃত মুক্তি খাতুন শৈলকুপা উপজেলার গাবলা গ্রামের শিমুল হাসানের স্ত্রী।

স্বজনদের অভিযোগ, বুধবার দুপুরে প্রসবের বেদনা নিয়ে রাবেয়া হাসপাতাল অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভর্তি হয় মুক্তিকে। বেলা ২টার দিকে সিজারের জন্য তাকে অপারেশন থিয়েটারে নেয়া হয় তাকে। কিছু সময় পর ভূমিষ্ঠ নবজাতককে তাদের কাছে দেয়া হয়।

তারা আরও জানান, কয়েক ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও প্রসূতিকে অপারেশন থিয়েটার থেকে বের করা হচ্ছিল না। এক পর্যায়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অ্যাম্বুলেন্স যোগে প্রসূতিকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠানোর চেষ্টা করে। এসময় তারা বাধা দেন। পরে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় ওই গৃহবধূকে।

তবে সদর হাসপাতালে আসার আগে ওই প্রসূতি মারা যায় বলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক মুসলিমা সপ্নীল জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রাবেয়া হাসপাতাল অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক সোহেল রানা যুগান্তরকে বলেন, শৈলকুপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডা. আবদুল্লাহ আসসাজ্জাদ রহিম ও ডা. আইয়ুব আলী সিজার করেছেন। তার দাবি, সিজারের শেষদিকে হার্ট অ্যাটাকে ওই নারীর মৃত্যু হয়েছে।

মৃত্যুর বিষয়ে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকদ্বয়ের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাদের পাওয়া যায়নি।

বুধবার রাত ১১ টার দিকে ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, প্রসূতি মায়ের মৃত্যুর বিষয়ে থানায় কেউ অভিযোগ করেননি। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এছাড়া হাসপাতালটির মালিক সোহেল রানাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে।

Check Also

গুম হওয়া ব্যক্তিদের পরিবারের নিকট ফেরত দেওয়ার আহবান

৩০ আগস্ট আন্তর্জাতিক গুম দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমীর ডা. শফিকুর রহমান ২৯ আগস্ট …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *