Breaking News

ড. মুফতি ইসমাইল মেনক এ সময়ের অন্যতম প্রসিদ্ধ ইসলামী স্কলার।

জিম্বাবুয়ের ড. মুফতি ইসমাইল মেনক এ সময়ের অন্যতম প্রসিদ্ধ ইসলামী স্কলার। তিনি মদিনায় ইসলামের ওপর উচ্চতর পড়াশোনা এবং অলডারগেট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সোশ্যাল গাইডেন্সের ওপর ডক্টরেট করেছেন। ড. মেনক তার গভীর জ্ঞান, বাস্তব পদ্ধতি এবং বুদ্ধি ও কৌতুক মেশানো উপস্থাপনার জন্য বিশেষভাবে খ্যাত ও জনপ্রিয়।

তিনি টুইটারে কোভিড-১৯ এর লকডাউনের সময় অনুশীলনের জন্য দু’টি বই গিফট করেছেন। জীবনাচরণের বিভিন্ন মৌলিক বিষয়ে সহজ সরল কিছু টিপস দিয়েছেন এখানে। লকডাউন গিফটের জীবন বদলানোর প্রথম আলোচনাটি হলো ধৈর্য। এই পরিচ্ছেদের শেষ অংশটি এখানে দেয়া হলো।

অনুবাদ করেছেন মাসুমুর রহমান খলিলী। সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে সর্বদায় সাবধানতার সাথে চিন্তা-ভাবনা করুন। তাড়াহুড়ো করবেন না। প্রায়ই আমরা ক্ষুব্ধ অবস্থায় ও চাপের মধ্যে সিদ্ধান্ত নেই। এটি করবেন না। ধৈর্যধারণ করুন। যখন খারাপ কিছু ঘটে, তখন দুর্ঘটনার সেই মুহূর্তটিকে অভিশাপ দেবেন না।

এর পরিবর্তে, সর্বশক্তিমানের সান্নিধ্য পেতে এটি ব্যবহার করুন। এ জন্যই পরীক্ষা করা হয়। ক্রোধ জ্বলন্ত আগুনের মতো। আপনি যদি নিজের ক্রোধ নিয়ন্ত্রণ করেন তবে আপনি আগুন নিভিয়ে দিলেন। আর আপনি যদি সেটাকে জ্বলে যেতে দেন, তবে আপনাকে তা খেয়ে ফেলবে।

বিষয়গুলো যত খারাপ হোক- তা মনে রাখবেন না, কিছুই স্থায়ী হয় না। সুতরাং আপনি যদি হাল ছেড়ে দিতে চান, তখন তা আপনি দৃঢ়ভাবেই করুন, আপনি যখন সরে আসতে চান, তখন শান্তভাবে এর ইতি টেনে দিন। আপনার জীবনে জিনিসগুলো যেভাবে চলছে তাতে কি আপনি হতাশ বোধ করছেন?

এটা দিয়ে আপনার বিশ্বাসের পরীক্ষা করা হচ্ছে। প্রতিবন্ধকতার প্রতি নয়, ফলাফলের দিকে মনোনিবেশ করুন। এটি সহজ নয়, তবে মুমিনের জন্য আসল পরীক্ষাটি হয় তখন, যখন তাদের সামনে আপত্তিকর এবং খারাপ আচরণ করা হয়, তখন শান্ত থাকেন কি না।

প্রতিটি দিনকে জীবনের জন্য নতুন লিজ হিসেবে গ্রহণ করুন। এটি নষ্ট করবেন না। সবাই তা পায় না। তাঁর কাছে আপনার ত্রুটির জন্য মার্জনা চান এবং ভালো মানুষ হতে সাহায্য প্রার্থনা করুন। বলুন, পরাক্রমশালী। এই দিনটিতে, ধৈর্য দিন, পূরণ করুন আমাদের হৃদয়কে।

ভাবুন, এখন যে অন্ধকার দেখা যাচ্ছে তারপর নতুন ভোর অপেক্ষা করছে। আপনি শিগগিরই স্বাচ্ছন্দ্য ফিরে পাবেন! প্রতিদিন প্রায় ৭০ হাজার চিন্তা আমাদের মাথা ভরিয়ে দেয়। ভালো এবং মন্দ উভয় ধরনের। আপনাকে তা থেকে বেছে নিতে হবে। ক্রোধ, বিদ্বেষ, হিংসা অথবা ইতিবাচক ও শান্তির ভাবনা।

এ জন্য সাবধান হোন, সতর্ক থাকুন। অনেকেই জানতে চান, ধৈর্য কিভাবে সুন্দর হতে পারে? এটি তো ক্লান্তিকর, বেদনাদায়ক, শক্তি নিঃশেষকারী। তবে হ্যাঁ, এটি দুর্দান্ত কেবল এ জন্য যে, সর্বশক্তিমানের ওপর আপনার আস্থা আছে পুরোপুরি। অনেক সময় কেবল আমাদের দুর্বলতা দেখার জন্য পরীক্ষা করা হয় এমন নয়।

সর্বশক্তিমান জানেন এবং চান আপনার শক্তি আপনি আবিষ্কার করুন। তাঁর প্রতি আস্থা রাখুন এবং ধৈর্যধারণ করুন। মাঝে মাঝে মনে হতে পারে বিষয়টি কত কঠিন আর সর্বশক্তিমান আপনার প্রার্থনায় সাড়া দিচ্ছেন না। তাতে হতাশ হবেন না। তাঁর প্রতি আস্থা রাখুন। যখন সময় কঠিন হয়, মনে রাখবেন, সর্বশক্তিমান কিভাবে ধৈর্যকে ভালোবাসেন।

তাঁর কাছে সর্বদায় ধৈর্য প্রার্থনা করুন। এর সাথে আসা পুরস্কারের কথা ভুলে যাবেন না। শেষ পর্যন্ত, আপনাকে সর্বশক্তিমান ছাড়া আর কারো দরকার হবে না। আপনি যা কিছুই করছেন তাতে ধৈর্য ধরুন। তাঁর প্রতি আস্থা রাখুন, সবকিছু আবার ঠিক হয়ে যাবে। সবশেষে আপনি যখন সর্বশক্তিমানের ক্ষমতা উপলব্ধি করতে পারছেন, আপনি দুঃখ পাবেন না।

আপনি জানেন যে, যা ঘটে তা তাঁর ইচ্ছা অনুসারে হয় এবং এটি আপনার জন্য সর্বোত্তম। যখন আপনি বিভ্রান্ত এবং হতাশ হন, কারণ সব ঠিকমতো হচ্ছে না, তখন অভিশাপ এবং হলফ ??করবেন না। লেগে থাকুন, ধৈর্যধারণ করুন। সর্বশক্তিমান সঠিক সময়টি কখন তা জানেন। প্রতিদিন আপনার মনকে ইতিবাচক ভাবনা দিয়ে ঝালাই করুন।

বিষয়গুলো আরো ভালো হবে। ধৈর্য সাথে রাখুন। হ্যাঁ, এটি তিক্ত তবে আপনি যখন সেখানে পৌঁছে যাবেন তখন আপনি সব ভুলে যাবেন। লোকদের হইচই ও ছোটখাটো অপমান নিয়ে চিন্তা করবেন না, আপনি সর্বশক্তিমানের কাছাকাছি যাওয়ার চেষ্টা করছেন। লক্ষ্যে মনোযোগ দিন এবং ধৈর্য ধরুন। তিনিই আপনাকে গাইড করবেন।

জীবনের রাস্তা আপনাকে পেছনে ভ্রমণ করতে দেয় না। সামনে এগুতে থাকুন। সব কিছুরই কারণ রয়েছে। আপনি এখন এটি নাও দেখতে পারেন; শুধু বিশ্বাস করে যান। এটা ভাবা সহজ যে, এতক্ষণ ধরে আপনি প্রার্থনা করছেন সর্বশক্তিমান শুনছেন না।

কখনো সন্দেহ করবেন না, তিনি সর্বজ্ঞ। সবই তাঁর সময়ের ব্যাপার। আপনার সমস্যাগুলো তিনি আপনার চেয়ে বেশি জানেন। তিনি জানেন যে, আপনার পক্ষে সবচেয়ে ভালো কোনটি। অতএব আপনি পরাক্রমশালীর ওপর ভরসা করুন।

তিনি আপনাকে দেখবেন। সর্বশক্তিমানের কাছ থেকে চাওয়া বন্ধ করবেন না। আপনার হাত বাড়িয়ে প্রার্থনা করুন। এটিই আপনার কাছে সবচেয়ে শক্তিশালী হাতিয়ার। এটা ব্যবহার করুন। তিনি আপনার কাছ থেকে প্রার্থনা শুনতে ভালোবাসেন।

Check Also

Police arrests Jamalpur district Ameer and 13 other party activists; Acting Secretary General of BJI condemns

Acting Secretary General of Bangladesh Jamaat-e-Islami Maulana ATM Masum has issued the following statement on …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *