Breaking News

যুক্তরাষ্ট্রের বিলবোর্ডে মহানবীর (সা.) বাণী

মহামারি করোনাভাইরাসে বিশ্বের ক্ষমতাশীল দেশ যুক্তরাষ্ট্রে বর্তমানে আট লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। দেশটির প্রায় সব রাজ্যই আক্রান্ত হয়েছে এই প্রাণঘাতী ভাইরাসে। এই করোনা প্রতিরোধে সবার মাঝে সচেতনতা ছড়িয়ে দিতে এক ভিন্ন চিত্র চোখে পড়ে দেশটির ইলিনয় রাজ্যের শিকাগো শহরের একটি বিলবোর্ডে।

মানুষকে সচেতন করতে যুক্তরাষ্ট্রের ওই বিলবোর্ডে ব্যবহার করা হয়েছে এক হাজার ৪০০ বছর আগের দেয়া সর্বশেষ নবী ও রাসুল হযরত মুহাম্মদের (সা.) বাণী। শিকাগোর রাস্তায় ওই বিলবোর্ডে নবী করিমের (সা.) তিনটি বাণী তুলে ধরা হয়েছে। বাণীগুলো হচ্ছে :Wash hands frequently.Don’t leave infected area.Don’t visit infected area.

অর্থাৎ ‘বারবার হাত ধৌত করো, সংক্রামিত এলাকায় প্রবেশ করো না ও সংক্রামিত এলাকা থেকে বাইরে যেও না।’ বুখারী, আস-সহীহ বর্ণিত হযরত মুহাম্মদ (সা.) ১৪ শ’ বছর আগে বলেছেন, ‘পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা ঈমানের অঙ্গ’।’অসুস্থকে সুস্থের মধ্যে নেয়া হবে না’, ‘যদি তোমরা শুনতে পাও যে,

কোনো জনপদে মহামারি প্রাদুর্ভাব ঘটেছে তবে তোমরা সেখানে গমন করবে না। আর যদি তোমরা আক্রান্ত জনপদে অবস্থান করে থাকো তবে তোমরা সেখান থেকে বের হবে না।’ এই তিনটি বাণীর আলোকে ওই বিলবোর্ডটি সাজানো হয়েছে। করোনা মোকাবেলায় এ পরামর্শ তিনটি সাধারণত সারা বিশ্ব নানাভাবে প্রচার করছে।

এছাড়াও এই বিলবোর্ডের এক প্রান্তে করোনার বিরুদ্ধে নিয়োজিত সকল কর্মীদের ধন্যবাদ জানানো হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো শহরে টাঙানো ওই বিলবোর্ডটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। ‘গেইনপিচ’ (Gain Peace) নামে একটি অলাভজনক সংস্থা শিকাগোর ওহারে বিমানবন্দরের অদূরে এই বিলবোর্ডটি স্থাপন করেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয়ভিত্তিক ইসলামি সংস্থাটির যাত্রা শুরু হয় ২০০৮ সালে। সংস্থাটির প্রাথমিক উদ্দেশ্য হচ্ছে, সাধারণ মার্কিন জনগণের মধ্যে ভুল ভ্রান্তি দূর করে ইসলামের সঠিক জ্ঞান বিতরণ করা। এ ছাড়া দেশটিতে ক্রমবর্ধমান ইসলামোফোবিয়া বা ইসলাম আতঙ্ক দূর করা।,যাতে ইসলামি মূল্যবোধ সম্পর্কে তারা যথাযথভাবে জানতে পারে।সূত্র : রিপাবলিকান অনলাইন

Check Also

গুম হওয়া ব্যক্তিদের পরিবারের নিকট ফেরত দেওয়ার আহবান

৩০ আগস্ট আন্তর্জাতিক গুম দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমীর ডা. শফিকুর রহমান ২৯ আগস্ট …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *