Breaking News

গাজীপুরের মেয়র N95 মাস্ক এনে স্বাস্থ্য বিভাগের কথাকে মিথ্যা প্রমাণ করলেন

সারাবেলা ডেস্ক: করোনা মোকাবেলায় পূর্বের মত আরো চিকিৎসা সামগ্রীসহ বিপুল সংখ্যক N95 মাস্ক এনেছেন গাজীপুরের মেয়র এডভোকেট মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম। করোনায় সেবা দেওয়ার জন্য চীন থেকে এসব সরঞ্জামাদি বিশেষ বিমানে আনা হয়। আজ ভোর ৫টা ৩০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে মেয়র এসব মালামাল নিজে গ্রহন করেন।

মেয়র জাহাঙ্গীর আলম জানান, করোনা এখন ভয়াবহ মহামারি। দূর্যোগ মোকাবেলায় চিকিৎসা সেবার সাথে সংশ্লিষ্টদের মাঝে এ গুলো বিতরণ করা হবে। করোনার রোগীর চিকিৎসা যেন কোন ভাবেই ক্ষতিগ্রস্থ না হয় সে জন্য তিনি এসব এনেছেন। গাজীপুরে করোনা রোগীর চিকিৎসা কাজে এগুলো ব্যবহার করা হবে।

এ ছাড়া দেশের প্রয়োজনে যে খানে লাগবে সেখানে দিতেও কোন আপত্তি নেই। করোনার আক্রমনের পর পরই মেয়র জাহাঙ্গীর আলম কিট, মাস্ক, পিপিই ও ঔষুধসহ করোনা চিকিৎসার বিপুল পরিমান সরঞ্জাম নিজ উদ্যোগে বিদেশ থেকে এনে বিতরণের ধারাবাহিকতায় তিনি এবার N95 মাস্কসহ আরো সরঞ্জাম আনলেন।

উল্লেখ্য যে, মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের চাহিদা মোতাবেক গাজীপুরের ৭০ লাখ মানুষের নিরাপত্তা ঝুঁকি বিবেচনায় করোনা চিকিৎসার জন্য ইতোমধ্যে শহীদ তাজউদ্দিন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালকে করোনা চিকিৎসার জন্য নির্ধারিত করা হয়েছে।

সরকার প্রজ্ঞাপন জারী করে এই সিদ্ধান্ত কার্যকরের নির্দেশ দিলে বর্তমানে শহীদ তাজউদ্দিন হাসপাতালকে প্রস্তুত করা হচ্ছে। মেয়রের আনা চিকিৎসা সরঞ্জাম গাজীপুরের একমাত্র করোনা হাসপাতালে ব্যবহৃত হবে। মাসের শুরু থেকেই স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিতরণ করা মাস্কের ব্যাপারে দেশজুড়ে স্বাস্থ্যকর্মীদের কাছ থেকে অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে।

শতাধিক চিকিৎসক ইতিমধ্যে করোনায় আক্রান্ত এবং এক চিকিৎসক মারা গেছেন। নিম্নমানের মাস্ক নিয়ে অভিযোগের তীর অধিদপ্তরের দিকে। এক চিকিৎসক সরাসরি প্রধানমন্ত্রীকে মাস্কের ব্যাপারে জানালে স্বাস্থ্যসেবা সচিব আর ডিজি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে বলেছিলেন তারা N95 মাস্ক পাচ্ছেন না। এরই প্রেক্ষিতে মেয়র মহোদয় N95 মাক্স এনে প্রমান করে দিলেন তাদের চেষ্টায় ত্রুটি ছিল।সূত্র: এই সময়

Check Also

Following consecutive remands; Jamaat leaders were sent to jail

The Jamaat leaders, who were arrested from an organizational meeting on last 6th September, were …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *