Breaking News

আল্লামা জুবায়ের আনসারীর ইন্তেকালে জামায়াতের শোক

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের সিনিয়র নায়েবে আমির আল্লামা জুবায়ের আহমদ আনসারীর ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী। শনিবার (১৮ এপ্রিল) গণমাধ্যমে পাঠানো এক শোকবাণীতে দলটির নায়েবে আমির অধ্যাপক মো: তাসনীম আলমি এই শোক প্রকাশ করেন।

শোকবাণীতে তিনি বলেন, “বাংলাদেশে ইসলামের প্রচার ও প্রসারে তার অনেক অবদান রয়েছে। তিনি একজন জনপ্রিয় ওয়াজিনের পাশাপাশি দেশের রাজনৈতিক অঙ্গণেও গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করেছেন। তিনি অনেক মসজিদ-মাদ্রাসা ও দ্বীনি প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠায় অবদান রেখেছেন।”

জামায়াতের এই নায়েবে আমির বলেন, “মহান রাব্বুল আলামীন তার খেদমতসমূহ কবুল করে তাকে জান্নাতের মেহমান বানিয়ে নিন। তার শোকসন্তপ্ত পরিবার-পরিজনদের ধৈর্য ধারণের তাওফিক দান করুন।” অন্যএক বিবৃতি জানানো হয়, দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার প্রথম পৃষ্ঠায় ‘নিম্নমানের মাস্ক জামায়াত নেতার প্রতিষ্ঠানের’ শিরোনামে যে অসত্য প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে তার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী।

শনিবার (১৮ এপ্রিল) দলটির কেন্দ্রীয় প্রচার বিভাগের সেক্রেটারি এডভোকেট মতিউর রহমান আকন্দ প্রদত্ত এক বিবৃতিতে বলেন, “দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় জামায়াতে ইসলামীকে জড়িয়ে যে রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়েছে তা সর্বৈব মিথ্যা, বানোয়াট ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত। আমি এ অসত্য রিপোর্টের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

জেএমআই গ্রুপ নামে যে ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের কথা উল্লেখ করা হয়েছে তার সাথে জামায়াতের কোন সম্পর্ক নেই। রিপোর্টে প্রতিষ্ঠানটিকে জামায়াতের ডোনার বলে উল্লেখ করা হয়েছে যা ডাহা মিথ্যা।” “ব্যবসায়ীর নাম উল্লেখ না করে আজগুবি তথ্যের ভিত্তিতে যে রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়েছে তা সংশ্লিষ্ট রিপোর্টারের মনগড়া বক্তব্য ছাড়া আর কিছু নয়।

শিরোনামে ‘জামায়াত নেতার প্রতিষ্ঠানের’ যে কথা বলা হয়েছে সে সম্পর্কে আমাদের স্পষ্ট বক্তব্য হলো জামায়াতের নেতা তো দূরের কথা কোনো কর্মীরও এ ধরনের প্রতিষ্ঠানের সাথে কোন সম্পর্ক নেই ।” এডভোকেট মতিউর রহমান আকন্দ বলেন,

“আমরা স্পষ্টভাবে বলতে চাই, যে ব্যক্তিই অপরাধ করুক না কেন তার বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। রিপোর্টে ব্যবসায়ীর নাম না উল্লেখ করে তাকে জামায়াতের কাল্পনিক ডোনার হিসাবে উল্লেখ করা থেকে প্রতীয়মান হয় প্রতিবেদনটি সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত।”

“দেশে বিরাজমান করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে জামায়াত জনগণের পাশে দাঁড়িয়ে যে ঐতিহাসিক ভুমিকা পালন করছে তাতে ঈর্ষান্বিত হয়েই সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদক এ ধরনের বানোয়াট রিপোর্ট তৈরী করেছেন। দৈনিক ইত্তেফাকের মত একটি দায়িত্বশীল সংবাদপত্রে এ ধরনের কাল্পনিক প্রতিবেদন প্রকাশ জনগণকে বিস্মিত করেছে।”

তিরি বলেন, “আমি আশা প্রকাশ করছি দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকা কর্তৃপক্ষ ভবিষ্যতে এ ধরনের অসত্য প্রতিবেদন প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকবেন এবং অত্র প্রতিবাদটি যথাস্থানে ছেপে জনমনে সৃষ্ট বিভ্রান্তি নিরসন করবেন।” প্রেস বিজ্ঞপ্তি

Check Also

Amnesty and HRW urge Bangladesh to immediate release Mir Ahmad, Amaan Azmi

Two human rights organizations – Amnesty International and Human Rights Watch – have urged Bangladesh …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *