Breaking News

ডা.মঈনুদ্দিনের ত্যাগ জাতি মনে রাখবে: প্রধানমন্ত্রী

করোনায় আক্রান্ত হয়ে সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. মঈনুদ্দিনের অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী বুধবার এক শোকবার্তায় ডা. মঈনের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

শোকবার্তায় সরকারপ্রাধান বলেন, এই মহৎপ্রাণ চিকিৎসক নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মানুষকে চিকিৎসা সেবা দিয়ে গেছেন। দেশ ও জাতি তার এই ত্যাগ মনে রাখবে। সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক ডা. মঈন একজন গরিবের ডাক্তার বলে সুপরিচিত ছিলেন।

করোনায় চিকিৎসা যুদ্ধ চালাতে গিয়ে নিজেই বুধবার সকাল পৌনে ৭টায় ঢাকার কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্রাণ হারিয়েছেন। দেশে এই প্রথম কোনো চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন।

প্রসঙ্গত গত ৫ এপ্রিল সন্ধ্যায় ডা. মঈনুদ্দিনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এরপর অবস্থার অবনতি হলে ৭ এপ্রিল শহীদ ডা. শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালের আইসোলেশন সেন্টারে নেয়া হয় তাকে। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকার কুর্মিটোলা হাসপাতালে আনা হয়েছিল।

এইদিকে করোনায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ডা. মঈনুদ্দিনের মৃত্যুতে তার গ্রামের বাড়িতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। বুধবার সকালে রাজধানীর কুর্মিটোলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ডা. মঈন মারা যান। তার মৃত্যুর খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে হাজার হাজার মানুষ তার গ্রামের বাড়িতে এসে ভিড় করেন। এ ছাড়া সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও তাকে নিয়ে অনেকেই শোক প্রকাশ করছেন।

সিলেটের ছাতক উপজেলার উত্তর খুরমা ইউনিয়নের নাদামপুরের সন্তান ডা. মঈন এলাকায় ‘গরিবের ডাক্তার’ হিসেবে পরিচিত ছিলেন। জানা গেছে, জনপ্রিয় এই চিকিৎসক গরিব রোগীদের বিনামূল্যে ওষুধ দিতেন। দুস্থ-অসহায় মানুষের কাছে তিনি ছিলেন আপনজন। দূরদূরান্তে রোগীদের বাড়ি গিয়ে বিনামূল্যে এবং নামমাত্র মূল্যে চিকিৎসাসেবা ও ওষুধ দেয়ার কারণে তাকে গরিবের মঈনুদ্দিন ডাক্তার বলা হতো। এ ছাড়া ধর্মীয় অনুশাসন মেনে সবসময় তিনি মানুষকে সৎপথে চলার উপদেশ দিতেন। সিলেটের ইবনে সিনা হাসপাতালে ডা. মঈনের ব্যক্তিগত চেম্বারেও গরিব রোগীদের জন্য রয়েছে বিশেষ ছাড়।

ডা. মঈনুদ্দিনের মৃত্যুতে ছাতক প্রেসক্লাবের সভাপতি গিয়াস উদ্দিন তালুকদার, সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন রনি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম হিরণ, সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী রেজাউল করিম রেজা, অর্থ সম্পাদক আতিকুর রহমান মাহমুদ, প্রচার সম্পাদক মাওলানা জুনাইদ আহমদ জুনেইদ, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক কামরুল হাসান সবুজ, সদস্য মোশাহিদ আলী, নাজমুল ইসলাম, হেলাল আহমদ, আরিফুর রহমান মানিক, সাংবাদিক অলিউর রহমান, হাসান আহমদ, আজিজুর রহমান শোকাহত পরিবারের আত্মার শান্তি ও মাগফিরাত কামনা করেন।

গত ৫ এপ্রিল সন্ধ্যায় ডা. মঈনুদ্দিনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর পর অবস্থার অবনতি হলে ৭ এপ্রিল শহীদ ডা. শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালের আইসোলেশন সেন্টারে নেয়া হয় তাকে। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকার কুর্মিটোলা হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন আজ মৃত্যুবরণ করলেন মেডিসিন ও হার্ট স্পেশালিস্ট ডা. মঈনুদ্দিন।

Check Also

লাকসামে ছাত্রশিবিরের নেতাকর্মীদের উপর আওয়ামী সন্ত্রাসী হামলা ও পুলিশের মিথ্যা মামলা এবং গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ

কুমিল্লা লাকসামে শিবির-জামায়াত সমর্থিত লোকজনের ব্যবসা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বাড়ি-ঘরে ব্যাপক ভাংচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *