Breaking News

এ আবার কেমন পদক্ষেপ,জীবাণুযুক্ত পানি দিয়ে জীবাণুনাশক স্প্রে!

করোনাভাইরাস এর বিস্তার প্রতিরোধে কিশোরগঞ্জের ভৈরব পৌরসভা কর্তৃপক্ষ তৈরি করছে জীবানুনাশক স্প্রে। তবে সেই স্প্রে তৈরি করতে ব্যবহার হচ্ছে ময়লা-আবর্জনায় ভর্তি নোংরা জীবানুমুক্ত পানি। পৌর শহরের স্টেশন রোড সংলগ্ন পৌর কবরস্থানের পূর্ব পাশের নোংরা ডোবা থেকে জীবাণুনাশক স্প্রে তৈরির জন্য পাইপ এর সাহায্যে পানি সংগ্রহ করতে দেখা গেছে।

করোনাভাইরাস সংক্রামণ প্রতিরোধে জীবাণুনাশক স্প্রে কর্মসূচির ব্যানারে পৌরসভার গাড়িতে বুধবার দুপুর ২টার দিকে ময়লা পানি তুলেছেন দুজন শ্রমিক। জানতে চাইলে তারা বলেন, কর্তৃপক্ষের নির্দেশেই এই জায়গা থেকে পানি সংগ্রহ করা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. বুলবুল আহমেদ বলেন, ডোবার পানি দিয়ে জীবাণনাশক স্প্রে তৈরির করার কোনো নির্দেশনা আছে বলে মনে হয় না।

এছাড়াও দূষিত পানি দিয়ে জীবাণুনাশক তৈরি হবে না বরং জীবাণু ছড়াবে। সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলে পদক্ষেপ নেওয়া হবে। করোন ভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির আহবায়ক ভৈরব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লুবনা ফারজানার কালের কণ্ঠকে জানান, ময়লা আবর্জনার পানি দিয়ে কখনোই জীবাণুনাশক তৈরি হবে না।

বিষয়টি নিয়ে পৌর মেয়রের সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ভৈরব পৌরসভার মেয়র এ্যাড. ফখরুল আলম আক্কাছ এর সাথে মুঠোফোনে কথা হলে এ বিষয়ে তিনি অবগত নন বলে জানান।

এ ছাড়াও তিনি আরো বলেন জীবাণুনাশক স্প্রে তৈরির জন্য শ্রমিকদেরকে পৌর কবরস্থানের পশ্চিম পাশের বিল থেকে পানি সংগ্রহের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। তারা যদি পূর্বপাশের ডোবা থেকে পানি সংগ্রহ করে থাকে তবে সেটি অনুচিত। যাচাই করে এবিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।.kalerkantho.com

Check Also

Amnesty and HRW urge Bangladesh to immediate release Mir Ahmad, Amaan Azmi

Two human rights organizations – Amnesty International and Human Rights Watch – have urged Bangladesh …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *