Breaking News

করোনাভাইরাসের ভয়াবহ থাবা, ক্রমেই বিচ্ছিন্ন হচ্ছে বিশ্ব

১২৪টি দেশ ও অঞ্চলে করোনার হানা, মৃতের সংখ্যা ৪,৬৩৫ * ইতালিতে একদিনে সর্বোচ্চসংখ্যক মৃত্যুর রেকর্ড * ইউরোপের ওপর যুক্তরাষ্ট্র, সৌদি আরব ও লেবাননের নিষেধাজ্ঞা। অধিকাংশ দেশে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) ছড়িয়ে পড়ায় ক্রমেই বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ছে গোটা বিশ্ব। এরই মধ্যে বেশ কয়েকটি দেশ বহির্বিশ্বের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছে। ভ্রমণেও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) পক্ষ থেকে এই ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবকে বৈশ্বিক অতি মহামারী হিসেবে ঘোষণার পর বিভিন্ন দেশ নানা পদক্ষেপ নিতে শুরু করেছে। দেশগুলো স্বেচ্ছায় অন্য দেশ থেকে নিজেকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলছে। করোনা আতঙ্কে ভারত সব ধরনের ভিসা বন্ধ করে দিচ্ছে।

ইউরোপে সব ধরনের ভ্রমণ স্থগিত ঘোষণা করেছে যুক্তরাষ্ট্র, সৌদি আরব ও লেবানন। ভারতে ফ্লাইট পরিচালনা বন্ধ করতে যাচ্ছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স, বেসরকারি বিমান সংস্থা নভোএয়ার ও ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনস। ভারতে বাংলাদেশিদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করায় বিমান সংস্থাগুলো এ ঘোষণা দিয়েছে। এদিকে আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের ওয়েবসাইট অনুযায়ী বিশ্বের ১২৪টি দেশ ও অঞ্চলে করোনা ছড়িয়েছে। ইতালিতে একদিনে সর্বোচ্চসংখ্যক মানুষের মৃত্যু হয়েছে। সারা বিশ্বে নতুন করে ২৩৮ জন আক্রান্ত হয়েছে।

এর মধ্যে চীনে ১৮ জন, দক্ষিণ কোরিয়ায় ১৪৪, যুক্তরাষ্ট্রে ৩৫, অস্ট্রেলিয়ায় ২১, কানাডায় চার, পোল্যান্ডে ১৩, ভারত ও থাইল্যান্ডে ১১, ইসরাইল ও বেলারুশে তিনজন এবং মেক্সিকোতে একজন করেনায় আক্রান্ত হয়েছে। সারা বিশ্বে এক লাখ ২৬ হাজার ৩৮০ জন আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে চার হাজার ৬৩৫ জন প্রাণ হারিয়েছে। আর সুস্থ হয়ে ৬৮ হাজার ৩১৩ জন বাড়ি ফিরে গেছে। প্রবাসী বাংলাদেশিদের তাড়াহুড়ো করে এ মুহূর্তে দেশে না ফেরার পরামর্শ দিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন। তিনি বলেন, যিনি যে দেশে আছেন সেখানেই থাকুন, সেই দেশের নিয়ম-কানুন ও পদক্ষেপ অনুসরণ করুন।

বৃহস্পতিবার ঢাকায় এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, যেসব প্রবাসী এখন বাংলাদেশে অবস্থান করছেন তাদের ভিসার মেয়াদ শেষ হলেও তা বাড়ানো হবে। আপাতত প্রবাসীদের দেশেই অবস্থান করতে বলেন তিনি। এদিকে বাংলাদেশে চারটি দেশের অন-অ্যারাইভাল ভিসা স্থগিত করা হয়েছে। ভারতে বিমান, নভো ও ইউএস-বাংলার ফ্লাইট বাতিল : করোনার কারণে আজ শুক্রবার থেকে আগামী রোববার পর্যন্ত অন্য সব দেশের মতো বাংলাদেশিদের ভারতে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে দেশটির সরকার। এ কারণে বাংলাদেশ থেকে ফ্লাইট পরিচালনা বন্ধ করতে যাচ্ছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস।

শুক্রবার থেকে বিমানের কোনো ফ্লাইট ভারতে যাবে না। একই ধরনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশের দুটি বেসরকারি বিমান সংস্থা নভোএয়ার ও ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনস। বিমান, নভোএয়ার ও ইউএস বাংলা এয়ারলাইনস ভারতে প্রতি সপ্তাহে মোট ৩৭টি ফ্লাইট পরিচালনা করে। ভারতের কলকাতা ও দিল্লি রুটে বিমানের ফ্লাইট চলাচল করে। ইউএস-বাংলার ফ্লাইট রয়েছে কলকাতা ও চেন্নাইয়ে। নভোএয়ারের ফ্লাইট রয়েছে কলকাতা রুটে।

এক মাসের জন্য ভিসা বাতিল করল ভারত : নির্দিষ্ট কোনো দেশ নয়, করোনাভাইরাসের আতঙ্কের জেরে সব দেশের জন্যই ভিসা বাতিল করেছে ভারত। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনা সংক্রমণকে প্যানডেমিক বা অতিমারী (মহামারীর চেয়েও ভয়াবহ) ঘোষণার পরই ভারতের কেন্দ্র সরকার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ১৩ মার্চ থেকে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত ভিসা দেয়া বন্ধ থাকবে। তবে কূটনৈতিক, অফিসিয়াল, জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক সংস্থাসহ অন্য কয়েকটি ভিসার ক্ষেত্রে ছাড় দেয়া হবে। ১৩ মার্চ গ্রিনিচমান সময় অনুসারে রাত ১২টা থেকে বিমানবন্দরগুলোতে এ নিয়ম কার্যকর হবে।

ভারতে ৭৩ জনের করোনা সংক্রমণ নিশ্চিত হয়েছে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন। দেশে দেশে করোনার প্রকোপ: চীনে প্রকোপ কমে গেলেও দেশটির বাইরে দুই সপ্তাহে করোনা ১৩ গুণ বেড়ে যাওয়ায় মহামারী ঘোষণা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। বুধবার পৃথিবীব্যাপী মহামারী ঘোষণা করে ডব্লিউএইচও। চীনে ৮০ হাজারেরও বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। আর চীনের বাইরে ইতালিতে সবচেয়ে বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। দেশটিতে ১৫ হাজার ৪৬২ জন আক্রান্ত হয়েছে এবং ৮২৭ জন মারা গেছে। এরপর ইরানে নয় হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছে এবং ৩৫৪ জন মারা গেছে।

দক্ষিণ কোরিয়ায় সাত হাজার ৮৬৯ জন আক্রান্ত এবং ৬৬ জন মারা গেছে। ফ্রান্সে দুই হাজার ২৮১ জন আক্রান্ত এবং ৪৮ জন মারা গেছে। স্পেনে দুই হাজার ২৭৭ আক্রান্ত এবং ৫৫ জন মারা গেছে। জার্মানিতে এক হাজার ৯৬৬ জন আক্রান্ত এবং তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। আর যুক্তরাষ্ট্রে এক হাজার ৩২২ জন আক্রান্ত এবং ৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। খবর বিবিসি, রয়টার্স, সিএনএন ও এনডিটিভির। ইতালি একদিনে প্রাণ গেল আরও ১৯৬ জনের : করোনার প্রকোপে ইতালি মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয়েছে। দেশটিতে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৯৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৮২৭ জনে দাঁড়িয়েছে। একদিনে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ৩১৪ জন।

দক্ষিণ কোরিয়ায় ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ১১৪ : দক্ষিণ কোরিয়ায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ১১৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে সাত হাজার ৮৬৯ জনে দাঁড়িয়েছে। একই সময়ে দেশটিতে নতুন করে আরও পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। সেখানে মৃতের সংখা দাঁড়িয়েছে ৬৬। বাংলাদেশ সীমান্তে হাট বন্ধ করল ত্রিপুরা: বাংলাদেশ সীমান্তে হাট বন্ধ করে দিয়েছে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্য। করোনা আতঙ্কে এটি বন্ধ করা হয়েছে বলে রাজ্য কর্মকর্তারা জানান। ভারতের উত্তর-পূর্ব রাজ্য ত্রিপুরার সঙ্গে বাংলাদেশের ৮৫৬ কিলোমিটার সীমান্ত রয়েছে। সীমান্তে বাংলাদেশিসহ যে কোনো বিদেশির শরীরের তাপমাত্রা বেশি পাওয়া গেলে তাকে ফেরত পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

রাজ্যের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দফতর জানায়, করোনার কারণে গণজমায়েত এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার নিয়ম-কানুন কঠোরভাবে মেনে চলতে কাস্টমস ও সীমান্ত রক্ষীবাহিনী বিএসএফকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। পর্যটকদের ত্রিপুরায় প্রবেশের অনুমতি বহাল থাকলেও তাদের কঠোর নজরদারির মধ্যে রাখা হবে বলেও জানানো হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞায় বিপাকে ইউরোপের এয়ারলাইন্স : সম্প্রতি ইউরোপ ভ্রমণ করেছেন এমন বিদেশি নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের ক্ষেত্রে ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের দেয়া নতুন নিষেধাজ্ঞায় বিশ্বব্যাপী এয়ারলাইন্স ব্যবসা মুখ থুবড়ে পড়তে পারে বলে বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করেছেন।যুক্তরাজ্য ছাড়া ইউরোপের সব দেশের নাগরিক ও দেশগুলো ভ্রমণ করে আসা বিদেশিদের ওপর শুক্রবার মধ্যরাত থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন এ ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হতে যাচ্ছে বলে জানা গেছে।

১ ফেব্রুয়ারি থেকে চীনের ওপরও একই ধরনের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে যুক্তরাষ্ট্র ‘সংকটকালীন মুহূর্তে’ প্রবেশ করায় ইউরোপের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারির প্রয়োজন হয়েছে। বুধবার জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে ট্রাম্প বলেন, চীনের বিরুদ্ধে আগাম পদক্ষেপ নিয়ে আমরা প্রাণরক্ষাকারী ব্যবস্থা নিয়েছিলাম। এখন ইউরোপের বিরুদ্ধেও আমাদের একই ধরনের পদক্ষেপ নিতে হবে। আমরা দেরি করতে পারব না। ট্রাম্প জানান, শুক্রবার মধ্যরাত থেকে পরবর্তী ৩০ দিন ইউরোপ থেকে যুক্তরাষ্ট্রে সব ধরনের ভ্রমণ স্থগিত থাকবে। তবে ‘কঠোর কিন্তু প্রয়োজনীয়’ এ নিষেধাজ্ঞা যুক্তরাজ্যের ওপর আরোপ করা হবে না বলে জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় যুক্তরাষ্ট্র নিজ দেশের নাগরিকদের বিদেশ সফর পুনর্বিবেচনার অনুরোধ জানিয়েছে। বুধবার রাতে মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের এক বিবৃতিতে বলা হয়, বর্তমানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে এবং ভাইরাসটি মোকাবেলায় নানা পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে। এক্ষেত্রে আক্রান্ত ব্যক্তিদের আলাদা করে রাখাসহ সীমান্তে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে এবং ভ্রমণ সীমিত রাখার কথা বলা হচ্ছে। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ভাষণ প্রচারিত হওয়ার পর এমন পরামর্শ দেয়া হল।

যুক্তরাষ্ট্রে ১৫ কোটি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হবে : যুক্তরাষ্ট্রে ৭ থেকে ১৫ কোটি মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হবে বলে জানিয়েছে দেশটির বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা। সিনেট সদস্যদের সঙ্গে এক রুদ্ধদ্বার বৈঠকে এসব কথা জানান যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস ও সুপ্রিমকোর্টের চিকিৎসক ডা. ব্রায়ান মনোহান। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে কমপক্ষে ৭ কোটি থেকে ১৫ কোটি আক্রান্ত হবে। তবে আক্রান্তদের মধ্যে ৮০ শতাংশ দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।

ইউরোপের ওপর সৌদির ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা : যুক্তরাষ্ট্রের পর এবার ইউরোপের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরব। ওমান, ফ্রান্স, জার্মানি, তুর্কি, স্পেন, আরব আমিরাত, কুয়েত, বাহরাইন, লেবানন, সিরিয়া, ইরাক, মিসর, ইতালি এবং দক্ষিণ কোরিয়ায় নাগরিকদের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সৌদি সরকার। সৌদি আরবে নতুন করে আরও ২৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। দেশটিতে এখন করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৪৫ জন। সৌদির রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা এসপিএ জানায়, করোনা আক্রান্ত দেশগুলোতে থাকা নিজ দেশের নাগরিকদের দেশে ফিরতে ৭২ ঘণ্টা সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে। কেউ নিজের স্বাস্থ্য বা ভ্রমণের বিষয়ে কোনো তথ্য গোপন করলে তাকে পাঁচ লাখ সৌদি রিয়াল জরিমানা করা হবে বলে ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

১১ দেশের ওপর লেবাননের সব ধরনের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা : করোনার প্রকোপ ঠেকাতে ১১ দেশের ওপর সব ধরনের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ লেবানন। এসব দেশ থেকে কোনো নাগরিক লেবাননে আসতে পারবে না এবং একই সঙ্গে লেবাননের নাগরিকরাও এসব দেশে ভ্রমণ করতে পারবে না। ফ্রান্স, জার্মানি, স্পেন, ইতালি, ইরান, চীন, দক্ষিণ কোরিয়া, যুক্তরাজ্য, ইরাক, মিসর এবং সিরিয়ার ওপর সব ধরনের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। ইতালি, ইরান, চীন এবং দক্ষিণ কোরিয়ার ওপরও তাৎক্ষণিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিল লেবানন কর্তৃপক্ষ। বুধবার এক ঘোষণায় ১১ দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেন প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াব। স্থল, সাগর ও আকাশপথে ভ্রমণ এ নিষেধাজ্ঞার আওতায় রয়েছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৬১ জন মারা গেছে।

টম হ্যাঙ্কস ও স্ত্রী করোনায় আক্রান্ত : হলিউড তারকা টম হ্যাঙ্কস ও তার স্ত্রী রিটা উইলসন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এলভিস প্রিসলির জীবনীনির্ভর এক সিনেমার শুটিংয়ের জন্য এ দম্পতি অস্ট্রেলিয়ার গোল্ড কোস্টে আছেন। আপাতত সেখানেই তাদের আইসোলেশনে থাকতে হবে। ইরানের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও দুই মন্ত্রী করোনা আক্রান্ত : ইরানের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং মন্ত্রিপরিষদের দুই সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানা গেছে। সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ইসহাক জাহাঙ্গীরের স্বাস্থ্য পরিস্থিতি নিয়ে কয়েকদিন ধরেই জল্পনা-কল্পনা চলছিল। এছাড়া তাকে বেশ কিছুদিন ধরে সরকারের উচ্চপর্যায়ের কোনো সভা-সমাবেশে দেখা যায়নি।

ফার্স আরও জানায়, করোনায় আক্রান্ত অন্য দু’জন মন্ত্রী হলেন- সাংস্কৃতিক ঐহিত্য, হস্তশিল্প ও পর্যটনমন্ত্রী আলী আসগার মৌনেসান এবং শিল্প, বাণিজ্য ও খনিমন্ত্রী রেজা রহমানী। তবে তাদের বিষয়ে সরকারের পক্ষ থেকে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। ইরানে ২৪ ঘণ্টায় ৬৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ৩৫৪ জনে দাঁড়িয়েছে। বিশ্বকাপ ফাইনালের ৮৬ হাজার দর্শকই করোনাঝুঁকিতে : মেলবোর্নে নারী টি ২০ বিশ্বকাপের ফাইনাল দেখতে আসা ৮৬ হাজার দর্শকই করোনাঝুঁকিতে। অস্ট্রেলিয়া-ভারতের ওই ম্যাচ দেখতে যাওয়া এক দর্শকের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। ৮ মার্চ নারী টি ২০ বিশ্বকাপের ফাইনালে ভারতকে হারিয়ে শিরোপা কুড়ায় অস্ট্রেলিয়া। আর দর্শক উপস্থিতির দিক থেকে রেকর্ড গড়ে ম্যাচটি।

মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে এদিন খেলা দেখতে উপস্থিত হয় ৮৬১৭৪ দর্শক। আর এমসিজির গ্যালারিতে উপস্থিত হওয়া দর্শকদের মধ্যে একজনকে করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে। অস্ট্রেলিয়ার ভিক্টোরিয়া রাজ্য সরকার ঘোষণা দিয়েছে, ওইদিন গ্যালারিতে যেসব দর্শক উপস্থিত ছিলেন তাদের মধ্যে কেউ যদি শারীরিক কোনো অস্বস্তি অনুভব করেন, তাহলে দ্রুতই যেন তারা ডাক্তারের শরণাপন্ন হয়। হুবেই প্রদেশে নতুন রোগী কমে এক অঙ্কে : চীনের হুবেই প্রদেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দিনে আটজনে নেমে এসেছে।

আক্রান্তের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে হ্রাস পাওয়ায় সেখানে বিধিনিষেধ শিথিল করা হচ্ছে। হুবেই প্রদেশ কর্তৃপক্ষ বৃহস্পতিবার ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরও শিথিল করার ঘোষণা দিয়েছে এবং প্রদেশের দুটি শহর ও দুটি কাউন্টির কিছু শিল্পপ্রতিষ্ঠানকে ফের উৎপাদন শুরুর অনুমতি দিয়েছে। এদিকে চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির মুখপত্র পিপলস ডেইলির এক সম্পাদকীয়তে সতর্ক করে বলা হয়, চীনে ভাইরাস সংক্রমণের নতুন ঘটনা কমতে থাকলেও এখনও কঠিন পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এতে প্রাদুর্ভাব ফের শুরু হওয়ার ঝুঁকি রয়ে গেছে।

Check Also

৫টি সব্জি সম্পর্কে সাবধান! বেশি খেলেই বিপদ ডেকে আনবেন

সুস্থ থাকতে গেলে রোজকার খাদ্যতালিকায় শাক-সব্জি বেশি রাখার পরামর্শ দেন চিকিৎসকেরা। শাক-সব্জি খেলে নানা রকম …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *