Breaking News

স্ত্রী-শ্যালিকাকে নিয়ে বৃদ্ধা মাকে মেরে রক্তাক্ত করলেন ছেলে

দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলায় বৃদ্ধা মাকে মারধরের পর বাড়ি থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে ছেলে ও পুত্রবধূর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ওই মা চিরিরবন্দর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার মন্ডলপাড়া এলাকায়। ওই এলাকার মৃত নুরুল হকের স্ত্রীর জবেদা বেওয়া (৬৫) মঙ্গলবার দুপুরে চিরিরবন্দর থানায় এ অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগে ছেলে আব্দুল সালাম (৪০), ছেলের স্ত্রী শাহিদা বেগম (৩৫) ও ছেলের শ্যালিকা হাবিবা খাতুনকে (৩৮) দায়ী করেছেন ওই মা।

জবেদা বেওয়ার দেয়া অভিযোগ থেকে জানা যায়, তার ছেলে ও ছেলের বউয়ের সঙ্গে বেশ কয়েকবার পারিবারিক বিষয় নিয়ে বিবাদ চলে আসছিল। এসবের জের ধরে এর আগেও ছেলে ও ছেলের বউ তাকে বেশ কয়েকবার শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করেছে। মঙ্গলবার বিকেল ৩টার দিকে পারিবারিক বিষয় নিয়ে আবারও ঝগড়া লাগলে ছেলে, ছেলের স্ত্রী ও ছেলের শ্যালিকা তাকে মারধর শুরু করেন। এতে রক্তাক্ত হয়ে পড়েন জবেদা বেওয়া। এ সময় তার চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন।

এ ব্যাপারে কথা হলে জবেদা বেওয়া বলেন, আমার ছেলে আমাকে বলে আমি তোকে চিনি না! আমার ঘরের ভেতর দিয়ে ছিটকিনি লাগিয়ে আমাকে বাইরে রাখছে।

এ বিষয়ে চিরিরবন্দর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুব্রত কুমার বলেন, এরকম একটি অভিযোগ পাওয়ার পরপরই পুলিশ দিয়ে আপাতত ওই মাকে ঘরে ঢুকিয়ে দেয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। আগামী বুধবার মা, ছেলে, ছেলের স্ত্রী ও তার শ্যালিকাকে থানায় ডাকা হয়েছে। বিষয়টি মিমাংসা করার জন্য চেষ্টা করা হচ্ছে। এরপরেও কোনো সুরাহা না হলে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

Check Also

গুম হওয়া ব্যক্তিদের পরিবারের নিকট ফেরত দেওয়ার আহবান

৩০ আগস্ট আন্তর্জাতিক গুম দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমীর ডা. শফিকুর রহমান ২৯ আগস্ট …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *