Breaking News

তামিম-মুশফিককেও কঠিন বাস্তবতার মুখোমুখি হতে হবে: মাশরাফি

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা বলেছেন, একজন ক্রিকেটারের ক্ষেত্রে একটা সময় আসে যখন প্রত্যেকটা দিনই তার জন্য চ্যালেঞ্জিং। এখন থেকে চার বছর পর তামিম ইকবাল, মুশফিকু রহিম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের মতো সিনিয়র ক্রিকেটারদেরও কঠিন বাস্তবতার মুখোমুখি হতে হবে।

তিনি আরও বলেন, সিনিয়রদের সঙ্গে পাল্লা দিয় তরুণ ক্রিকেটার যারা থাকবে তারা সবাই চাইবে তাদের সেরাটা উজাড় করে দিতে। তরুণরা চাইবে সিনিয়রদের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে। এটা কিন্তু একটা প্রক্রিয়া। এটা নিয়ে চিন্তার এত কিছু দেখি না।

গত বছর ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে প্রত্যাশিত পারফরম্যান্স করতে পারেননি মাশরাফি। বিশ্বকাপ শেষে সাত মাস পর জাতীয় দলের হয়ে খেলতে নামছেন তিনি। ক্যারিয়ারের শেষ সময়ে নিম্নমুখী পারফরম্যান্সের কারণে হতাশ মাশরাফি নিজেও। অফ ফর্মে থেকে বেরিয়ে আসতে নিজের সর্বোচ্চ চেষ্টাই করে যাচ্ছেন জাতীয় দলের এ অধিনায়ক।

শনিবার সিলেটে ম্যাচ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফি বলেন, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের প্রত্যেকটা ম্যাচেই চাপ থাকে। সবশেষ টেস্টে মুশফিক ২০০ রান করেছে। ও পরের ম্যাচে যখন ব্যাটিং করতে নামবে তখনও চাপে থাকবে। পরিস্থিতিরও একটা চাপ থাকে, সেটি সবাইকে সামলাতে হবে। আমার ব্যাপারটা হয়ত একটু ভিন্ন দিকে চলে গিয়েছে। পারফর্ম করিনি তাই জটিল জায়গায় আছে।

তিনি আরও বলেন, এটা নিয়ে ভেবে কোনো লাভ নেই। দুশ্চিন্তা করলে ফর্মে ফিরতে পারব না। আমি গ্যারান্টি দিয়েও বলতে পারব না যে রোববার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিলেটে পাঁচ উইকেট শিকার করতে পারব। তবে সবাইত চেষ্টা করে সেরাটা দেয়ার। আমিও সেটাই করে যাব।

মাশরাফি আরও বলেন, দলে থাকা না থাকা আমার ভাবনার জায়গা না, এটা বোর্ড-ম্যানেজমেন্টের সিদ্ধান্ত। নতুন করে প্রমাণের কিছু নেই। আমি তো গ্যারান্টি দিতে পারব না আমি ভালো করবই। তবে একটা গ্যারান্টি দেয়া যায় আমি শতভাগ চেষ্টা করব। পৃথিবীর কোনো ক্রিকেটারই ভালো খেলার নিশ্চয়তা দিতে পারবে না।

Check Also

এক সুনিল ছেত্রীর কাছেই হেরে গেল বাংলাদেশ

২০২২ বিশ্বকাপ আর ২০২৩ এশিয়ান কাপ বাছাইপর্বের লড়াইয়ে আজ কাতারের দোহায় মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ আর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *