Breaking News

জেনেনিন টান টান উত্তেজনাকর ম্যাচে শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে কারা কিভাবে জিতলো?

টান টান উত্তেজনাকর ম্যাচে শ্রীলংকার জয়। ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ২৯০ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর তাড়া করতে নেমে ১ উইকেটের জয়ে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ১-০তে এগিয়ে গেল শ্রীলংকা। জয়ের জন্য শেষ দিকে লংকানদের প্রয়োজন ছিল ৩০ বলে মাত্র ২৯ রান। হাতে ছিল ৩ উইকেট। কিমো পাওয়েলের করা ৪৬তম ওভারে আউট হন ইসুরু উদানা।

শেলডন কটরিলের করা পরের ওভারে ১২ রান আদায় করে নেন ডি সিলভা। জয়ের জন্য শেষ ১৮ বলে প্রয়োজন ছিল মাত্র ১৩ রান। ১৮তম ওভারে মাত্র ৩ রান খরচ করে খেলা নিজেদের ফেভারে নিয়ে নেন ক্যারিবীয় পেসার কিমো পাওয়েল। ৪৯তম ওভারে শেলডন কটরিলের ওভারে ৯ রান আদায় করে নিয়ে শ্রীলংকার জয় প্রায় নিশ্চিত করে ফেলেন ডি সিলভা। তখন দুই দলের স্কোর সমান ছিল।

শেষ ওভারে প্রয়োজন ছিল মাত্র ১ রান। হাতে ছিল ২ উইকেট। ওভারের প্রথম বলে সান্দাকানকে আউট করে নিশ্চিত হেরে যাওয়া ম্যাচে ফের জয়ের স্বপ্ন দেখা ওয়েস্ট ইন্ডিজের পেসার কিমো পাওয়েল। কঠিন চাপের মুহূর্তে দ্বিতীয় বলটি ‘নো’ দেন পাওয়েল। ৫ বল হাতে রেখেই ১ উইকেটের জয় নিশ্চিত করে শ্রীলংকা।

২৯০ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে উড়ন্ত সূচনা করে শ্রীলংকা। উদ্বোধনী জুটিতে ১৮ ওভারে ১১১ রান করেন দুই ওপেনার আভিস্কা ফার্নান্দো ও করুনারত্নে। এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় শ্রীলংকা। ৫৭ বলে ৫২ রান করেন আউট হন অধিনায়ক করুনারত্নে।

এরপর মাত্র ১০ রানের ব্যবধানে ফেরেন অন্য ওপেনার ফার্নান্দো। তিনি আউট হওয়ার আগে করেন ৫৫ বলে ৫০ রান। ২৫ বলে ২০ রান করে আউট হন কুশল মেন্ডিস। ৫ রানে আউট হন সাবেক অধিনায়ক অ্যাঞ্জোলো ম্যাথিউস। তিনি ফেরেন মাত্র ৫ রানে। ১৮ রানে আউট হন ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা।

দলীয় ২১৫ রানে ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন দুর্দান্ত ব্যাটিং করে যাওয়া কুশল পেরেরা। এরপর হাসারঙ্গাকে সঙ্গে নিয়ে দলকে জয়ের স্বপ্ন দেখান থিসেরা পেরেরা। টি-টোয়োন্টির আদলে ব্যাটিং করে যাওয়া থিসেরা পেরেরা ২২ বলে তিনটি চার ও এক ছক্কায় ৩২ রান করে আউট হন।

শনিবার শ্রীলংকার কলম্বোর স্পোর্টস ক্লাব মাঠে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন লংকান অধিনায়ক করুনারত্নে। প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে মাত্র ১০ রানে ওপেনার সুনিল অ্যামব্রিসের উইকেট হারিয়ে চাপের মধ্যে পড়ে যাওয়া ওয়েস্ট ইন্ডিজকে খেলায় ফেরান শাই হোপ ও ড্যারেন ব্রাভো। দ্বিতীয় উইকেটে তারা গড়েন ৭৭ রানের জুটি। ৫২ বলে ৩৯ রান করে আউট হন ব্রাভো।

এরপর রোস্টন চেজকে সঙ্গে নিয়ে ৮৫ রানের জুটি গড়েন শাই হোপ। ২ উইকেটে ১৭২ রান করা উইন্ডিজ এরপর নিয়মিত ব্যবধানে উইকেট হারায়। ৪৫ বলে ৪১ রান করে আউট হন রোস্টন। ১২ বলে ১১ রান করে আউট হন নিকোলাস পুরান। অধিনায়ক কায়রন পোলার্ড ফেরেন ৬ বলে ৯ রান করে।

ইনিংসের শুরু থেকে দায়িত্বশীল ব্যাটিং করে যাওয়া শাই হোপ ক্যারিয়ারের ৭৬তম ওয়ানডেতে ৯ম সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে আউট হন। সাজঘরে ফেরার আগে ১৪০ বলে ১০টি চারের সাহায্যে ১১৫ রান কনের এ ওপেনার। শেষ দিকে কিমো পাওয়েল ও হেইডেন ওয়ালসের ব্যাটিং তাণ্ডবে ৭ উইকেটে ২৮৯ রান তুলতে সক্ষম হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। মাত্র ১৭ বলে ৩২ রান করেন পাওয়েল। ৮ বলে ২০ রান করেন ওয়ালস।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ৫০ ওভারে ২৮৯/৭ (শাই হোপ ১১৫, রোস্টার চেজ ৪১, ব্রাভো ৩৯)। শ্রীলংকা: ৪৯.১ ওভারে ২৯০/৯ (করুনারত্নে ৫২,ফার্নান্দো ৫০,, ডি সিলভা ৪২*, কুশাল পেরেরা ৪২, থিসেরা পেরেরা ৩২)। ফল: শ্রীলংকা ১ উইকেটে জয়ী।

Check Also

Amnesty and HRW urge Bangladesh to immediate release Mir Ahmad, Amaan Azmi

Two human rights organizations – Amnesty International and Human Rights Watch – have urged Bangladesh …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *